১১ ফসলে ৭ লাখ কৃষকের মাঝে ৮০ কোটি টাকার কৃষি প্রণোদনা

 দেশের সব জেলার ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষকদের মাঝে ১১টি ফসল চাষে বিনামূল্যে বীজ ও সার সহায়তা প্রদানে কৃষি প্রণোদনা ঘোষণা করেছে কৃষি মন্ত্রণালয়।

চলতি ২০১৮-১৯অর্থ বছরে ৬৪টি জেলায় ৬ লাখ ৯০ হাজার ৯ শত ৭০ জন ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষককে ৭৯ কোটি ৯৯ লক্ষ ৮২ হাজার ৪ শত ৯৫ টাকার বীজ ডিএপি ও এমওপি সার প্রদান করা হবে। পরিবার প্রতি সর্বোচ্চ ১ বিঘা জমির জন্য রয়েছে বিনামূল্যে বীজ ও রাসায়নিক সার (ডিএপি ও এমওপি)।

কৃষি মন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী মন্ত্রণালয়ে সভাকক্ষে খরিপ-২ ও রবি /২০১৮-২০১৯ মৌসুমের কৃষি প্রণোদনা  প্রদান কার্যক্রম উপলক্ষে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য তুলে ধরেন।

প্রেস ব্রিফিংয়ে জানানো হয়, গম এর ক্ষেত্রে প্রতি কৃষক ১ বিঘা জমির জন্য ২০ কেজি গম বীজ, ২০ কেজি ডিএপি ও ১০ কেজি এমওপি সার পাবেন। এতে সর্বসাকুল্যে ব্যয় হবে ১ হাজার ৯ শত ৬৫ টাকা।

ভূট্টা’র ক্ষেত্রে  ১ বিঘা জমির জন্য ২ কেজি ভূট্টা বীজ, ২০ কেজি ডিএপি ও ১০ কেজি এমওপি সার পাবেন।  সর্বসাকুল্যে ব্যয় হবে ১ হাজার ৩ শত ২ টাকা।

সরিষা’র ক্ষেত্রে প্রতি কৃষক ১ বিঘা জমির জন্য ১ কেজি সরিষা বীজ, ২০ কেজি ডিএপি ও ১০ কেজি এমওপি সার পাবেন। সর্বসাকুল্যে ব্যয় হবে ৭শত ৮৬ টাকা।

চীনাবাদাম এর ক্ষেত্রে প্রতি কৃষক ১ বিঘা জমির জন্য ১০ কেজি চীনাবাদাম বীজ, ১০ কেজি ডিএপি ও ৫ কেজি এমওপি সার পাবেন। সর্বসাকুল্যে ব্যয় হবে ১ হাজার ৫ শত ৬৩ টাকা।

গ্রীষ্মকালীন তিল এর ক্ষেত্রে প্রতি কৃষক ১ বিঘা জমির জন্য ১ কেজি তিল বীজ, ২০ কেজি ডিএপি ও ১০ কেজি এমওপি সার পাবেন। সর্বসাকুল্যে ব্যয় হবে ৭ শত ৯২ টাকা।

গ্রীষ্মকালীন মুগ এর ক্ষেত্রে প্রতি কৃষক ১ বিঘা জমির জন্য ৫ কেজি মুগ বীজ, ১০ কেজি ডিএপি ও ৫ কেজি এমওপি সার পাবেন। সর্বসাকুল্যে ব্যয় হবে ৯ শত ৩৫ টাকা।

খেসারী এর ক্ষেত্রে প্রতি কৃষক ১ বিঘা জমির জন্য ৮ কেজি খেসারী বীজ, ১০ কেজি ডিএপি ও ৫ কেজি এমওপি সার পাবেন।  সর্বসাকুল্যে ব্যয় হবে ৯ শত ৭৬ টাকা।

ফেলন এর ক্ষেত্রে প্রতি কৃষক ১ বিঘা জমির জন্য ৭ কেজি ফেলন বীজ, ১০ কেজি ডিএপি ও ৫ কেজি এমওপি সার পাবেন। সর্বসাকুল্যে ব্যয় হবে ১ হাজার ৪৪ টাকা।

বিটি বেগুন এর ক্ষেত্রে প্রতি কৃষক ১ বিঘা জমির জন্য ২০ গ্রাম বিটি বেগুন বীজ, ২০ কেজি ডিএপি ও ১০ কেজি এমওপি সার পাবেন। সর্বসাকুল্যে ব্যয় হবে ৯ শত ৯৫ টাকা।

বোরো এর ক্ষেত্রে প্রতি কৃষক ১ বিঘা জমির জন্য ৫ কেজি বীজ, ২০ কেজি ডিএপি ও ১০ কেজি এমওপি সার পাবেন। সর্বসাকুল্যে ব্যয় হবে ১ হাজার ২ টাকা।

শীতকালীন মুগ এর ক্ষেত্রে প্রতি কৃষক ১ বিঘা জমির জন্য ৫ কেজি মুগ বীজ, ১০ কেজি ডিএপি ও ৫ কেজি এমওপি সার পাবেন। সর্বসাকুল্যে ব্যয় হবে ৯ শত ৩৫ টাকা।

প্রেসব্রিফিং অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন মন্ত্রণালয়ের সচিব নাসিরুজামান, অতিরিক্ত সচিব (প্রশাসন ও উপকরণ অনুবিভাগ) মোঃ সিরাজুল হায়দার, এনডিসি, অতিরিক্ত সচিব (পিপিসি অনুবিভাগ) মোহাম্মদ নজমুল ইসলাম, অতিরিক্ত সচিব (সম্প্রসারণ অনুবিভাগ) সনৎ কুমার সাহা, বিএডিসি’র চেয়ারম্যান, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের মহাপরিচারক ও বাংলাদেশ ধান গবেষনা ইনস্টিটিউট এর মহাপরিচালকসহ মন্ত্রণালয়ের উর্ব্ধতন র্ককর্তারা। মন্ত্রণালয়ের তথ্য ও জনসংযোগ কর্মকর্তা মোহাম্মদ গিয়াস উদ্দিন স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য ধরা হয়।

কৃতজ্ঞতাঃ ফসল ডেস্ক, এগ্রিকেয়ার২৪.কম