রাজধানীর ফার্মগেটের কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশন বাংলাদেশ (কেআইবি) চত্বরে শেষ হলো তিন দিনের জাতীয় কৃষি যন্ত্রপাতি মেলা ২০১৯। কৃষি মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে ডিএই’র খামার যান্ত্রিকীকরণ প্রকল্পের আয়োজনে দ্বিতীয়বারের মতো এই মেলার সমাপনী দিন ছিল শনিবার (২৭ এপ্রিল)।

 

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের খামার যান্ত্রিকীকরণ প্রকল্প (২য় পর্যায়) এর প্রকল্প পরিচালক শেখ মো. নাজিম উদ্দিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন কৃষি মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (প্রশাসন ও উপকরণ) ড. মোছাম্মৎ নাজমানারা খানুম। বিশেষ অতিথি কৃষি মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (সম্প্রসারণ) সনৎ কুমার সাহা। স্বাগত বক্তব্য দেন কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের খামার যান্ত্রিকীকরণ প্রকল্প (২য় পর্যায়) এর উপ-প্রকল্প পরিচালক মো. শফিকুল ইসলাম শেখ।

কেআইবির থ্রি-ডি হলে প্রধান অতিথি মেলায় অংশগ্রহনকারী স্টলের মধ্যে পুরষ্কার বিতরণ করেন। মেলার প্রতিপাদ্যের সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ প্রযুক্তির সংখ্যা, যন্ত্রের সংখ্যা, সাজসজ্জার মান, প্রযুক্তি উপস্থাপনের মান এবং স্টলের যথার্থতা উপস্থাপন করে জাতীয় কৃষি যন্ত্রপাতি মেলা ২০১৯ এ অংশগ্রহনকারী স্টলগুলোর মধ্যে সরকারি পর্যায়ে যৌথভাবে প্রথম হয়েছে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর ও বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন কর্পোরেশন। দ্বিতীয় হয়েছে বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট (বারি) এবং তৃতীয় হয়েছে বাংলাদেশ সুগার ক্রপ গবেষণা ইনস্টিটিউট। বেসরকারি পর্যায়ে যৌথভাবে প্রথম হয়েছে দি মেটাল (প্রা:) লিমিটেড ও এসিআই মটরস লিমিটেড। দ্বিতীয় হয়েছে আলিম ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড এবং তৃতীয় হয়েছে জনতা ইঞ্জিনিয়ারিং। পুরষ্কার হিসেবে ছিলো ক্রেষ্ট ও সনদ।  মেলায় অংশগ্রহনকারী অন্যান্য সকল প্রতিষ্ঠানকে পুরস্কৃত করা হয়। মেলায় মোট ২৯টি প্রতিষ্ঠান অংশগ্রহন করে।
 
উল্লেখ্য ‘যান্ত্রিকীকরণই গড়বে আধুনিক ও লাভজনক কৃষি’ প্রতিপাদ্যে ২৫ এপ্রিল শুরু হয়েছিলো জাতীয় কৃষি যন্ত্রপাতি মেলা ২০১৯