পালংশাক বারি পালংশাক ১


  • জাত এর নামঃ

    বারি পালংশাক ১

  • আঞ্চলিক নামঃ

  • অবমূক্তকারী প্রতিষ্ঠানঃ

    বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট

  • জীবনকালঃ

    বপনের ৩০-৩৫ দিন পর থেকে উত্তোলন যোগ্য। দিন

  • সিরিজ সংখ্যাঃ

  • উৎপাদন ( সেচ সহ ) / প্রতি হেক্টরঃ

    ৪৫-৫০ টন কেজি

  • উৎপাদন ( সেচ ছাড়া ) / প্রতি হেক্টরঃ

    ০ কেজি

  • জাত এর বৈশিষ্টঃ

    1. ১। জাতটি উচ্চ ফলনশীল এবং পোকমাকড় প্রতিরোধী।
    2. ২। এর পাতা আকারে বড়, বোটা ছোট, পাতা আকর্ষণীয় গাঢ় সবুজ রঙের।
    3. ৩। পাতা নরম, খেতে সুস্বাদু এবং শাকটির পুষ্টি গুনাগুনও অত্যন্ত উচ্চমানের।
    4. ৪। হেক্টর প্রতি ফলন ৪৫-৫০ টন।

  • চাষাবাদ পদ্ধতিঃ

    1. ১ । বপনের সময় : অক্টোবর-নভেম্বর মাসে বীজ বপন করতে হয়।
    2. ২ । মাড়াইয়ের সময় : বীজ বপনের ৩০-৩৫ দিন পর থেকে সংগ্রহ করা যায়।
    3. ৩ । সার ব্যবস্থাপনা (হেক্টর প্রতি) : হেক্টর প্রতি গোবর ১০ টন, ইউরিয়া ১৮০ কেজি, টিএসপি ১২৫ কেজি, এমওপি ১২৫ কেজি প্রয়োগ করতে হবে। জমি তৈরির সময় গোবর ১০ টন, ইউরিয়া ৭৫ কেজি, টিএসপি ১২৫ কেজি, এমওপি ৫০ কেজি; চারা রোপণের ১০ দিন পর হেক্টর প্রতি ইউরিয়া ৩৬ কেজি, এমওপি ২৫ কেজি; চারা রোপণের ৩০ দিন পর হেক্টর প্রতি ইউরিয়া ৩৬ কেজি, এমওপি ২৫ কেজি ও চারা রোপণের ৪৫ দিন পর হেক্টর প্রতি ইউরিয়া ৩৬ কেজি, এমওপি ২৫ কেজি হারে প্রয়োগ করতে হবে।

পালংশাক এর জাত সমূহ

বারি পালংশাক ১
বারি পালংশাক ১